স্বপ্নের পথে এগিয়ে যাওয়ার অনুপ্রেরনার ছবি- রাগী এন মারিয়া বা “Annmariya Kalippilaanu”

আমাদের সবার জীবনের স্বপ্নগুলো সত্যি করতে নিজের প্রচেষ্ঠার সাথে একজন এন্জেল বা ফেরেশতার দরকার। ফেরেশতা যে কারোই রূপে আসতে পারে…তাই স্বপ্নের পথে এগিয়ে যান ফেরেশতা এই আসলো বলে…
 
স্কুল পড়ুয়া মেয়ে এন বাবা রয় এবং মা ত্রেসা রয়, তিন সদস্যের ছোট পরিবার। বাবার কাছ থেকে গল্প শুনার বায়না তাই বাবাও বলে তাঁর দীর্ঘলাফে বিরত্বের কথা। মেয়েদের কাছে তাঁর বাবা সবসময় সুপারহিরো, তাই তাঁরা তাদের বাবার মতন বা বাবাকে অতিক্রম করতে চায়, এনও ঠিক তেমনটা।
 
অপরদিকে ভদ্রবেশে ঘুরে বেড়ানো মানুষগড়ার কারিগররূপি পশুরা বন্ধ দরজার ওপারে অপরাধ করে বেড়ায় যা ভদ্রসমাজ খুব একটা দেখেনা। ঘটনার মোড় নেয় তখনই যখন মানুষরূপী পশুটার আসলরূপ ধরা পড়ে এন নামের ছোট মেয়েটার কাছে। মানুষ ছোট হলেও আজ কালকের বাচ্চারা অনেক মেধাবী হয়, তাই ঘটনার গভীরতা বুঝতে পেরে প্রধান শিক্ষকের কাছে নালিশ করে। কিন্তু প্রমান ছাড়া কেই-বা কি করতে পারে। কিন্তু এর মাধ্যমে এনের নামটি সামনে আসে পশুটার। সুতরাং পশুরা যা করে সুযোগের সৎব্যাবহার করা শুরু করে। দীর্ঘলাপে ভালো করা স্বত্বেও ফাউল বলে বাদ দিয়ে দেয়। বাচ্চারা যতদ্রুত স্বপ্ন দেখে তার পথে বাধা তাকে ঠিক ততটাই ভয়ার্ত করে তোলেযে আর সামনে এগুতে চায়না। কিন্তু আমাদের এন একটু সাহসীই বটে গিরিশকে ভাড়া করে শিক্ষকরূপী বদমায়েশটাকে শায়েস্তা করতে।
 
গরিব ঘরের সন্তান গিরিশ পেশায় পাতিমাস্তান, মারতে গিয়ে নাক-থোবড়া ফাটিয়েই যার দিন চলে আসলে থোবড়াটা তারই ফাটে 😛 কাজের কাজ কিছুই করে না সারাদিন টেক্সি চালিয়ে এদিক-ওদিক ঘুরে বেড়ায় , দোকানে বাঁকি খায় আর নগদ বকা খায় :)।
 
একদিকে পরেরজন্য চ্যারিটি করা বাবা এবং সমাজসেবা করা মায়ের সম্পর্কের টানাপোড়ন, অন্যদিকে পশুরূপী শিক্ষকটার ভৎসনা; স্বপ্নের পথে কতটুকু হাঁটতে পারবে এন বিস্তারিত জানতে হলে দেখতে হবে এনমারিয়া কৈলিপ্পাইলানু বা রাগী এন মারিয়া।
 
দুলকার সালমানের সিনেমাগুলো দেখার উদ্দেশ্যেই এনমারিয়া কৈলিপ্পাইলানু দেখা যদিও সালমানের স্ক্রিনপ্রেজেন্স ছিল ক্ষনিকের জন্য কিন্তু দুর্ধান্ত। গিরিশ চরিত্রে অভিনয় করা সানি ওয়েন অসাধারন অভিনয় করেছে। সানিওয়েনের সাথে দেখা এই দুলকারের হাত ধরেই। এনের চরিত্রে অভিনয় করা সারা অর্জুন অসাধারন…
 
সময়ে করে দেখে ফেলতে পারেন। কই পাবেন? ভালো কোয়ালিটি প্রিন্টের জন্য অবশ্যই টরেন্টস কিংবা এমএলএসবিডি-তে। তবে মোটামুটি কোয়ালিটিতে দেখতে চাইলে http://www.alammahbub.com/blog/film-collection/dulquer-salmaan-film-collection/ এর ১৮. নাম্বার মুভি Ann Maria Kalippilaanu (২০১৬) অনলাইনে বসেই ৩৬০পিক্সেলে দেখতে পারেন।
বিদ্র: ভূল বানান ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। সাবমেকার <3 এবং আপলোডার মইনুল ইসলামকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।