মুসলিম পরিচয় দেওয়ার আগে মানুষ হিসেবে পরিচয় দিতে চাই

অবতারনা

একটা মানুষকে কুপিয়ে মারছে আর বাকিরা সবাই দাঁড়িয়ে দেখছে। আমিও হয়তবা এমনটাই করতাম, নিজেকে কাপুরুষ বলতেও দ্বিধা হয়না। কাপুরুষ যারা ভারত ভারত নিয়ে চিল্লাও কয়েকদিন ধরে তোমার সোনার দেশে এমন আগেও হয়েছে এখনও হয় তুমি কোনো চুল ছিড়তে পারনা, পারবানা। পারবা শুধু ধর্মের দোহাই দিয়ে, দেশের দোহাই দিয়ে নিজের কাপুরুষতা প্রকাশ করতে।

গতকাল তাবরেজের উপর অত্যাচার নিয়ে কেউ একজন একটা পোষ্ট শেয়ার করে এবং সাথে গরু সহযোগে হিন্দু ধর্ম নিয়ে কটাক্ষ্য করে। তার ঠিক নিচে কতগুলো মনুষ্যরুপী জানোয়ার নিজেকে মুসলিম পরিচয় দিয়ে নিজ ধর্মস্তুতি গাইছিল আর সাথে সাথে পরধর্মের জাত উদ্ধার করছিল। এরাই কখনো কোন হিন্দু বা বোদ্ধের ঘরে আগুন দিয়েছিল। ধর্ষনের মাধ্যমে সংখ্যাগরিষ্ঠতার সুফল ভোগ করেছে কিংবা ধর্মের দোহাই দিয়ে পরধর্মের কটাক্ষ করে চলেছে।

কেউ এমন ইতমধ্যে করেছে, কেউ ভবিষ্যতে এমনটাই করবে। এরা সবাই পটেনশিয়াল রেপিস্ট কিংবা পরের অধিকার লুন্ঠনকারী। এরা না চেনে মোহাম্মদ (সা:) না চেনে তার ধর্ম। এমনকি ধর্মের সর্বোচ্ছ জ্ঞান হস্তগত করে অনেকেই মোটা অংকের টাকা নিয়ে ওয়াজ মাহফিলে বক্তব্য দেয়, যার বৃহদাংশ থাকে পরচর্চা, কুৎসা এবং পর ধর্মের মানুষকে তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করা। এমনকি ভাল জ্ঞানী স্কলাদের পক্ষ বিপক্ষ নিয়ে কামড়া-কামড়ি। আবার সুযোগ ফেলে খ্রিস্টান মিশনারিদের সমালোচনা করতেও ভোলে না।

আমিও তাদের দলেরই একজন, আমিও কাপুরুষ, আমিও আমার ধর্ম জানিনা কিংবা মানিনা। কিন্তু আমি এতটুকু জানি আমি কারো অধিকার খর্ব করার অধিকার রাখিনা। কারো ধর্ম নিয়ে অসুস্থ সমালোচনা করিনা।
৯০ শতাংস মুসলিমের ভেজালে ভরা দেশে এতকিছুর পরও আমি, আমরা বেঁচে আছি একটি সুন্দর আগামী দেখার উদ্দেশ্য। যেখানে আমি কারো উপর তেড়ে যাবনা এই ভেবে যে সে একজন নাস্তিক কিংবা অন্যধর্মাবলম্বি।

একজন মোল্লা যখন ভাল মুসলিমের মত আচরন করেনা তখন আমরা তাঁর খুব সমালোচনা করি। কিন্তু মুসলিম পরিচয় নিয়ে যখন আমরা একজন মানুষের মত আচরন করতেও অসমর্থ হই কই নিজের সমালোচনাতো করি নাহ!

ভাল মানুষ নেই তা কিন্তু নয়! এইযে আজ সকালে সিএনজি অটোরিক্সায় ভূলে মোবাইল ফেলে এসেছিলাম, আধা ঘন্টা পর ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটির এক ভাইয়া ফোনটি ফিরিয়ে দিয়ে যায়। এমনকি মাঝের সময়টাতে আমার ডায়ালে থাকা নাম্বারে ফোন করে আমার সাথে যোগাযোগ করার তথ্য সংগ্রহের চেষ্টা করে।
ভাল মানুষ আছে থাকবে কিন্তু তার রেশিওটা নিতান্তই কম। ধার্মিক কখনো হতে পারবো না কিন্তু নিজের দোষত্রুটি কমিয়ে যদি একজন ভাল মানুষ হতে পারি সেই মোনাজাত থাকবে উপরওলার কাছে।

ধন্যবাদ, ভাল বিকোয় এমন কোন ইস্যু নিয়ে কথা বলিনি তবুও এতটুকু পড়ে এসেছেন তার জন্য ধন্যবাদ। আমার একেকটা ছবিতে লাইক পড়ে ৮০-৯০ কিংবা তারও অধিক কিন্তু যদি কোন ভাল কিছু শেয়ার করি তবে ১০-১২ অনেক কষ্টে হয় ধরি এরা সবাই আমার লেখা পড়ে তবেই লাইক বাটনে প্রেস বা ট্যাপ করে। আর আপনি তাদের মাঝেই একজন। ধন্যবাদ <3 ভূল ত্রুটি ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখার জন্য।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।